নিউজ ডেস্ক: নাটোরের সিংড়ায় ‘আশ্রয়’ নামের একটি এনজিও’র ফুলবাগান নাটোর শাখার উপ-অঞ্চল ব্যবস্থাপক রবিউল ইসলাম ও সিংড়ার ব্যবস্থাপক ভবানী রায়ের রিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানি ও প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) এ বিয়ষে সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর ‘আশ্রয়’র দুই ব্যবস্থাপকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করেছেন আব্দুর সালাম সহ কয়েকজন সদস্য।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আব্দুর সালামসহ কয়েকজন সদস্য ‘আশ্রয়’ নামের একটি এনজিও থেকে ঋণ নিয়া ব্যাবসা শুরু করলে ‘আশ্রয়’ এনজিও’র নাটোর শাখার উপ-অঞ্চল ব্যবস্থাপক রবিউল ইসলাম ও সিংড়ার ব্যবস্থাপক ভবানী হঠাৎ তাদের আগের ঋণ পরিশোধ করলে সবাইকে সুদমুক্ত ঋণ দেওয়ার আশ্বাস দেন। এই সুদমুক্ত ঋণের আশায় আব্দুর সালামসহ অন্য সদস্যরা অন্য জায়গা হতে সুদের উপর টাকা নিয়ে দ্রুত আগের ঋণ পরিশোধ করেন। কিন্তু এনজিও‘র ২ ব্যবস্থাপক হঠাৎ করে তাদের ঋণ প্রদান বন্ধ করে দেন। এতে বেকায়দায় পড়েছেন ভুক্তভোগী সদস্যরা। পূরোনো ঋণ পরিশোধের পর সুদমুক্ত ঋণের আশায় ব্যবসায়ীরা আশ্রয় অফিসে গেলেও পাননি কোন আশ্রয়। বরং তাদেরকে আর ঋণ দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ।

এব্যাপারে সদস্য আব্দুর সালাম বলেন, আমি ‘আশ্রয়’ এনজিওর নিয়মিত সক্রিয় সদস্য হিসাবে ১ বছর মেয়াদে মাসিক কিস্তিতে ১ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়া ব্যবসা করে আসছি। সুদমুক্ত ঋণের আশায় আমি ১ সপ্তাহ আগে তাদের সমস্ত ঋণ পরিশোধ করি। কিন্তু দুই ব্যবস্থাপক এখন আর আমাকে ঋণ দিচ্ছেন না। এই ঋণ না পেলে আমার পথে বসতে হবে।

প্রকল্পের উপ পরিচালক রবিউল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এনজিওর কাজ হচ্ছে ঋণ দেয়া নেয়া। সুদ ছাড়া কোন এনজিও ঋণ দেবে না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে বলেও জানান তিনি।