বিশেষ প্রতিবেদক: নাটোরের সিংড়া উপজেলায় গভীর রাতে প্রাচীর টপকে বাড়িতে ঢুকে হাত পা বেঁধে কুপিয়ে আহত করে আড়াই লক্ষ টাকা লুট করার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পিতা ও তার তিন পুত্র আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, পিতা শাহাদত হোসেন ও তার তিন ছেলে মনির ( ১৮), মানিক (১৬) মামুন (২৩)।

শুক্রবার (৭ আগস্ট) রাতে ডাহিয়া ইউনিয়নের লালুয়া পাঁচপাকিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এসময় প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজন বাড়ির পুরুষ তিনজনকে বেঁধে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহত মনির নামে একজনেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার গভীর রাতে আলতাব ও আরিফের নেতৃত্বে ৭/৮ জনের একটি দল বাড়ির প্রাচীর টপকে বাড়িতে ঢুকে স্ত্রের মুখে বাড়ির সবাইকে জিম্মি করে ফেলে। এসময় বাড়ির লোকজনকে বেঁধে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জখম করে আড়াইলক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

আহত মামুন জানান, আলতাব ও আরিফকে চিনতে পেরেছি, তাদের বাড়ি এই গ্রামে। আমরা গরীব, জমি কেনার কথা ছিলো, বিষয়টি তারা জানতো। তাদের নেতৃত্বে হামলা হয়।

ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম জানান, এটি দুঃখজনক ঘটনা। আমি দূরে থাকায় ফোনে বিষয়টি শুনে মেম্বার ও দলীয় লোকজনদের ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। ক্ষতিগ্রস্তদের আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলেছি বলেও জানান তিনি।

সিংড়া থানার ওসি নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তসাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।