নিউজ ডেস্ক: নাটোরের সিংড়ায় বাড়ির সীমানায় আমগাছ লাগানোকে কেন্দ্র করে রাশেদুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবকের প্রতিপক্ষের লোকজন কুপিয়ে হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী ও সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তা সুজন সরকার।

শুক্রবার (৩ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে নাটোরের সিংড়া শহরের চকসিংড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত কৃষককে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি ওই এলাকার জিয়ার উদ্দিন প্রামাণিকের ছেলে। এই ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন, আলতাব হোসেন (৫৬) ও তাঁর ছেলে আরিফুল ইসলাম (২২)। এ ঘটনায় পুলিশ দুজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ (শুক্রবার) দুপুরে চকসিংড়া মহল্লায় বাড়ির সীমানায় আমগাছ লাগানো নিয়ে প্রতিবেশী আলতাব হোসেনের সঙ্গে কৃষক রাশেদুল ইসলামের চাচা আবুল কালাম আজাদের ঝগড়ার একপর্যায়ে রাশেদুলকে হাঁসুয়া দিয়ে কুপিয়ে তাঁর বাঁ হাত ও পায়ের রগ কেটে দেন আলতাব হোসেন (৫৬) ও তাঁর ছেলে আরিফুল ইসলাম (২২)। পরে গুরুতর আহত রাশেদুলকে প্রথমে সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তা সুজন সরকার জানান, কৃষক রাশেদুল ইসলামের বাঁ হাত, পা ও ঘাড়ে হাঁসুয়ার কোপ রয়েছে। কোপের ফলে হাত ও পায়ের রগ কেটে গেছে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে দু’জনকে আটক করা হয়েছে। আহত ব্যক্তির চিকিৎসা নিয়ে পরিবারের লোকজন ব্যস্ত থাকায় এ ঘটনায় সন্ধ্যা পর্যন্ত মামলা হয়নি বলে জানান তিনি।