নাটোরের সিংড়ায় বন্যায় ভেসে গেলো মোস্তাকের তিন’শ হাঁস। ছবি: আবু জাফর সিদ্দিকী

বিশেষ প্রতিবেদক: প্রায় ছয়শ হাঁস দিয়ে খামার করেছিলেন সিংড়ার চকসিংড়া মহল্লার মোস্তাক আলী। সে ঐ গ্রামের মৃত হাতেম আলীর পুত্র। দ্বিতীয় দফা বন্যায় বুধবার মধ্যরাতে সিংড়ার শোলাকুড়া বাঁধ ভেঙ্গে বিলীন হয়ে যায় প্রায় ১৫টি বাড়ি।

এসময় আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয় আরো ৫টি বাড়ি। সেই একই রাতে মোস্তাক আলীর ছয়শ হাঁস ভেসে যায়। পরেরদিন তিনি শহরবাড়ী, কয়ড়াবাড়ী, হিজলী, ডাহিয়া গ্রামে ঘুরে ঘুরে তিন’শ হাঁস খুঁজে পায়। বাঁকি তিন’শ হাঁস এখনো নিখোঁজ রয়েছে তার। তিন’শ হাঁসের বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় লক্ষাধিক টাকা।

ভূক্তভোগী মোস্তাক আলী জানান, আমি একজন গরীব মানুষ, কয়েকমাস আগে ছয়শ হাঁস দিয়ে খামার করেছি। বন্যায় আমার তিন’শ হাঁস ভেসে গেছে। সরকারের কাছে আকুল আবেদন করছি আমাকে ক্ষতিপূরণ দেবার জন্য।

কৃতজ্ঞতা: আবু জাফর সিদ্দিকী