ছবি: মো. আবু জাফর সিদ্দিকী

বিশেষ প্রতিবেদক: অতি বৃষ্টিপাত ও আত্রাই নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নাটোরের সিংড়ায় বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। পানিবন্দি পরিবারের অনেকে আত্মীয় ও প্রতিবেশীদের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে।

এখন পর্যন্ত আশ্রয়কেন্দ্রে এসেছে প্রায় ৩০টি পরিবার। সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে সিংড়া-কলম সড়কের বলিয়াবাড়ী এলাকার রাস্তা। যেকোন মুহূর্তে ধসে যেতে পারে এ রাস্তাটি। এছাড়াও রোপা আমন ও বেশ কিছু পুকুরের মাছের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

অন্যদিকে বিলের ঘাস ডুবে যাওয়ায় খাদ্য সঙ্কটে রয়েছে গবাদিপশু। স্বাভাবিক বিচরণ ব্যাহত হচ্ছে এ উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকার গবাদিপশুর।

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান জানান, মঙ্গলবার সিংড়া পয়েন্টে আত্রাই নদীর পানি বিপদসীমার ৬৫ সে. মি. ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শেরকোল এলাকায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামত করা হচ্ছে। অপরদিকে, ত্রিমোহনী কলেজ এলাকার রাস্তা সংস্কার করে পানি প্রবাহ বন্ধের কাজ আজ শুরু হবে।

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরিন বানু জানান, উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টি ইউনিয়নে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যে তাজপুর, শেরকোল ও কলম ইউনিয়ন ঝুকিপূর্ণ। এসব ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য ৫০টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৫-৬টি আশ্রয়কেন্দ্রে প্রায় ৩০টি পরিবার গবাদি পশুসহ আশ্রয় নিয়েছে।

কৃতজ্ঞতা: মো. আবু জাফর সিদ্দিকী