ছবি: মো. আখলাকুজ্জামান

বিশেষ প্রতিবেদক: মানসিক প্রতিবন্ধি হেলাল (৪০) নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় মধ্যমপাড়া মহল্লার মৃত আক্কাছ মন্ডলের অসহায় ছেলে। ১৪ বছর আগে হারিয়ে যায়। অবশেষে বরিশালের খোকন নামের এক ব্যবসায়ী নাটোরের ব্যবসায়ী তারেক মিয়ার সহযোগিতায় ২৯ জুলাই হেলালকে বরিশাল থেকে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছেন।

এ খবর শুনে গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম রোববার (৯ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে হেলালকে দেখতে তাদের বাড়িতে যান। তাদের আসহায়ত্ব দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ওসি। হেলালের মা সাজেদা বেওয়ার হাতে তুলে দেন খাদ্য সহায়তা। এভাবেই মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন এই পুলিশ অফিসার।

ওসি মোজাহারুল ইসলাম বলেন, ২৬ বছর আগে হেলালের বাবা মারা যান। হেলালকে নিয়ে মা সাজেদা কোনোমতে দিনযাপনের এক পর্যায়ে হেলাল হারিয়ে যায়। এরপর তার মা অসহায় বৃদ্ধ হয়ে পড়েন। বয়সের ভাড়ে নুয়ে পড়েছেন তিনিও। হেলাল মানসিক প্রতিবন্ধি হওয়ায় তেমন কাজ কর্ম করতে পারেন না। তাদের খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে। অসহায়দের জন্য গুরুদাসপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এই সহায়তা প্রদান অব্যাহত থাকবে।

স্থানীয়রা জানান, ছোটবেলা থেকেই হেলাল খুব ভদ্র কিন্তু মানসিক রোগী। যেখানে সেখানে ঘুরে বেড়াতো। বাড়ি থাকে না, আবার আসে। এর মধ্যে ১৪ বছর আগে হারিয়ে যায়। তবে ব্যবসায়ী খোকনের সহযোগিতায় হেলালকে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ায় ওই পরিবারে যেন ঈদ আনন্দ চলছে।

বরিশাল কোর্ট রোডের নাছির স্টোরের মালিক মো. খোকন জানান, প্রায় ১২ বছর আগে হেলাল বরিশালে আসে। পাগল বেশে ঘুরে বেড়ায়। ঘরোয়া ও আকাশ হোটেল থেকে তাকে মাঝে মধ্যে খাবার দেওয়া হতো। অনেকের টুকিটাকি কাজও করে দিত হেলাল। এভাবে এলাকায় তার সততা ও পরিচিতি বৃদ্ধি পায়।

ব্যবসায়ী খোকন তাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতো। হেলালও তার দোকানের জন্য পাইকারী মালামাল কিনে আনতো। বিশ্বাসী হওয়ায় খোকন তাকে ভালবাসতেন এবং বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতেন।

কৃতজ্ঞতা: মো. আখলাকুজ্জামান