নিউজ ডেস্ক: বিশ্বের ষষ্ঠ শীর্ষ তেল মজুতকারী দেশ কুয়েতের নতুন আমির শেখ নওয়াফ আল-আহমাদ আল-সাবাহ দেশটির নতুন যুবরাজের নাম ঘোষণা করেছেন। তিনি বর্তমানে দেশটির ন্যাশনাল গার্ডের উপপ্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন।

বুধবার (৭ অক্টোবর) বর্তমানে ন্যাশনাল গার্ডের সহকারী প্রধান শেখ মিসাল আল-আহমাদ আল-জাবের আল-সাবাহ’র নাম ঘোষণা করেছেন। তবে পার্লামেন্টের অনুমোদনের মাধ্যমে যুবরাজ হিসেবে শেখ মিসালের নিয়োগ চূড়ান্ত হবে। তবে আল-সাবাহ পরিবারের আর্শীবাদপুষ্ট পার্লামেন্ট সহজেই তা অনুমোদন করবে বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে।

নতুন যুবরাজের নাম ঘোষণার আগে কুয়েতের পার্লামেন্টের স্পিকার জানান, বুধবার যদি আমির মনোনীতের নাম প্রকাশ করেন তাহলে বৃহস্পতিবারই ভোটাভুটির মাধ্যমে তা চূড়ান্ত করা হবে।

এছাড়া নতুন যুবরাজ হিসেবে শেখ মিসালের প্রতি নিজেদের সমর্থন আছে জানিয়ে কুয়েতের শাসক আল-সাবাহ পরিবারের দু’জন সদস্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টুইটারে নিজেদের অবস্থান ঘোষণা করে বার্তা দিয়েছেন।

কুয়েতের সবশেষ আমির ও ভাই শেখ সাবাহ আল-আহমাদের মৃত্যুর পর গত সপ্তাহে দেশটির নতুন আমির হিসেবে ক্ষমতায় আরোহণ করেন শেখ নওয়াফ। তার বয়স এখন ৮৩ বছর। আর ১৯৪০ সালে জন্ম নেয়া শেখ মিসাল সদ্য প্রয়াত আমিরের ছোট ভাই। ২০০৪ সাল থেকে তিনি দেশটির ন্যাশনাল গার্ডে সহকারী প্রধান হিসেবে রয়েছে। এ ছাড়াও নিরাপত্তা বাহিনী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান ছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কুয়েতের ৪১ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে ৩৪ লাখই বিদেশি। বিগত ২৬০ বছর ধরে দেশটি শাসন করছে সাবাহ পরিবার। উপসাগরীয় এলাকায় যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ মিত্র কুয়েত। দেশটির রাজনৈতিক বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়ার ক্ষমতা থাকে আমিরের। পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়া কিংবা পাল্টে দিয়ে নির্বাচনের ডাক দেওয়ার ক্ষমতাও আমিরের হাতে রয়েছে।

সূত্র : আল জাজিরা।